Notice

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০১৯

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০১৯ প্রকাশিত হয়েছে। সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এবং টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজসমূহে ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি আজ প্রকাশিত হয়। কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সকল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব গ্লাস এন্ড সিরামিক, গ্রাফিক আর্টস ইনস্টিটিউট, ফেনি কম্পিউটার ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ সার্বে ইনস্টিটিউট (কুমিল্লা), রাজশাহী সার্ভে ইনস্টিটিউট, কোকেশনাল টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (বগুড়া), নেক্টার (বগুড়া) এবং সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজসমূহে ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লিামা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা-ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ডিপ্লোমা ইন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি কোর্সে ১ম ও ২য় শিফটে ছাত্র/ছাত্রী ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন আহ্বান করা হয়েছে।

আবেদনের সময়সূচি:
অনলাইনে আবেদন শুরু ১২ মে ২০১৯ তারিখে। আবেদনের শেষ তারিখ ৮ জুন ২০১৯ তারিখে। এসএমএস ও ওয়েব সাইটে ফলাফল প্রকাশ হবে ১৫ জুন ২০১৯ তারিখে। মূল মেধাতালিকা হতে ভর্তি ১৬ জুন ২০১৯ থেকে ২৫ জুন ২০১৯ তারখি পর্যন্ত। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে অপেক্ষমান তালিকা হতে ভর্তি ২৯ জুন ২০১৯ তারিখ থেকে ২৫ জুলাই ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত। ক্লাস শুরুর তারিখ ১ আগষ্ট ২০১৯।

৩.০ ভর্তির শিক্ষাগত যােগ্যতা :

৩.১ ভর্তির জন্য ২০১৭, ২০১৮, ২০১৯ সালে পাসকৃত এস.এস.সি./সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ছেলেদের ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে কমপক্ষে জি.পি.এ. ৩.০০ সহ ন্যূনতম ৩.৫০ জি.পি.এ. প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা এবং মেয়েদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে কমপক্ষে জি.পি.এ. ৩.০০ সহ ন্যূনতম ৩.০০ জি.পি.এ. প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা এবং ‘ও’ লেভেলে যে কোন একটি বিষয়ে ‘সি’ গ্রেড এবং গণিতসহ অন্য যেকোন দুটি বিষয়ে কমপক্ষে ‘ডি’ গ্রেডে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে। ‘ও’ লেভেল হতে যারা পাস করেছে তাদের নম্বর সনদ সাধারন শিক্ষা বাের্ড থেকে এসএসসি এর সমমান করে মেধাক্রম অনুসারে ভর্তির সুযােগ দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীরা সাধারন বাের্ড হইতে নম্বর সনদের সমমান মূল্যায়ন পত্র কারিগরি শিক্ষা বাের্ডে জমা দিতে হবে।
৩.২ এস.এস.সি.সহ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ড কর্তৃক অনুমােদিত ০২ (দুই) বছর মেয়াদী ট্রেড কোর্স পাস প্রার্থীরাও আবেদন করতে পারবে। তবে আবেদন ফরম জমা দেয়ার শেষ তারিখে প্রার্থীর বয়স অনুর্ধ্ব ২২ বছর হতে হবে। |

৪.০ আবেদনের পদ্ধতি ও নিয়মাবলী : 

৪.১ ভর্তিচ্ছু প্রার্থীকে অন-লাইনে ১ম ও ২য় শিফটের যে কোন এক শিফটের জন্য আবেদন ফি বাবদ ১৫০/- (একশত পঞ্চাশ টাকা) অথবা উভয় শিফটে আবেদনের জন্য আবেদন ফি বাবদ ৩০০/| (তিনশত টাকা) প্রথমে টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ/বিকাশ এর মাধ্যমে জমা দিতে হবে। অতঃপর Www.btebadmission.gov.bd অথবা www.bteb.gov.bd অথবা | www.techedu.gov.bd অথবা www.tmed.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে নির্ধারিত আবেদন ফরম (Application form) যথাযথভাবে পূরণ করতে হবে। ৪.২ বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি. উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের নম্বরপত্রের সত্যায়িত কপি ও পাসপাের্ট সাইজের ২কপি সত্যায়িত রঙ্গিন ছবিসহ নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্র আগামী ১০/০৬/২০১৯ তারিখ অফিস চলাকালীন সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের পুরাতন ভবনের ৪১২ নং কক্ষে সরাসরি পৌছানাে নিশ্চিত করতে হবে। ফরমটি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের ওয়েবসাইট (www.btebadmission.gov.bd) থেকে সংগ্রহ করতে হবে। নির্ধারিত সময়ের পরে প্রাপ্ত আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে। ৪.৩ সংরক্ষিত কোটার (ভােকেশনাল ও মহিলা কোটা ব্যতিরেকে) আবেদনকারীগণ অন-লাইনে আবেদন করার পরে আবেদনের প্রিন্ট কপি ও অনুচ্ছেদ ৯.৩ এ বর্ণিত সকল কাগজপত্র আগামী ১০/০৬/২০১৯ তারিখ অফিস চলাকালীন সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের পুরাতন ভবনের ৪১২ নং কক্ষে সরাসরি অথবা খামে ভর্তি কোটার আবেদন” লেখাসহ নিম্নস্বাক্ষরকারীর বরাবর ডাকযােগে পৌছানাে নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় নির্ধারিত কোটা বিবেচ্য হবে না। ৪.৪ ভর্তি সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ড, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর, সহ সকল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এবং | টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

৫.০ ফি জমা দেয়ার পদ্ধতি :
৫.১ টেলিটক মােবাইল ফোনের মাধ্যমে মেসেজ অপশনে গিয়ে BTAD লিখে, স্পেস দিয়ে শিক্ষা বাের্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর লিখে, স্পেস দিয়ে এস.এস.সি. পরীক্ষার রােল নম্বর লিখে, স্পেস দিয়ে এস.এস.সি. পাসের সন লিখে স্পেস দিয়ে ভর্তির শিফটের নির্ধারণ অক্ষর লিখে 16222 নম্বরে SMS পাঠাতে হবে। উদাহরণঃ BTAD <Space>XXX<Space>YYYYYY< Space>ZZZZ<Space>S এখানে, XXX এর স্থলে আবেদনকারী যে শিক্ষা বাের্ড থেকে এস.এস.সি. পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, সে বাের্ডের নামের সংক্ষিপ্ত রুপ [যেমন, ঢাকা বাের্ডের বেলায় (DHA), সিলেট (SYL), বরিশাল (BAR), চট্টগ্রাম (CHI), কুমিল্লা (COM), দিনাজপুর (DIN), যশাের (JES), রাজশাহী (RAJ), মাদ্রাসা (MAD), কারিগরি (TEC)], উন্মুক্ত (BOU) YYYYYY এর স্থলে আবেদনকারীর এস.এস.সি. পাসের রােল নম্বর ও ZZZZ এর স্থলে এস.এস.সি. পাসের সন এবং S-এর স্থলে ১ম শিফট (A), ২য় শিফট (B), উভয় শিফট (C) হবে। ৫.২ SMS-প্রেরণকারী আবেদনের যােগ্য হলে প্রার্থীর নাম, পিতার নাম, শিফট, একটি PIN নম্বর এবং পরীক্ষার ফি হিসেবে এক শিফটের জন্য ১৫০/-(একশত পঞ্চাশ) / উভয় শিফটের জন্য ৩০০/= (তিনশত) টাকা কেটে রাখার সম্মতি চেয়ে ফিরতি SMS দেয়া হবে। ফিরতি SMS মনােযােগের সাথে দেখে নিয়ে তথ্যাদি সঠিক থাকলে সম্মতি দিতে হবে। সম্মতি দেয়ার জন্য |BTAD<Space>YES<Space>PIN<Space> যােগাযােগের Mobile Number লিখে 16222 নম্বরে SMS পাঠাতে হবে। তবে যেকোন অপারেটরের একটি Mobile Number কেবলমাত্র একজন প্রার্থীর যােগাযােগের জন্য ব্যবহার করতে হবে। প্রার্থীকে Money receipt নম্বরসহ একটি ফিরতি SMS দেয়া হবে। উল্লেখ্য যে, Money receipt নম্বরটি নিজ দায়িত্বে সংরক্ষণ করতে হবে এবং Money receipt নম্বরটি পাওয়ার পরে অন-লাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। |

৫.৩ রকেট/শিওরক্যাশ এর মাধ্যমে ফি জমা দেয়ার পদ্ধতি :

রকেটের জন্য প্রযােজ্য। *322# ডায়াল করতে হবে। ধাপ-১: মেনুতে Payment নির্বাচন করতে হবে। ধাপ-২: Bill Pay নির্বাচন করতে হবে। ধাপ-৩: Successful SMS পাওয়ার জন্য নিজ রকেট একাউন্ট হলে Self বা অন্য রকেট একাউন্ট হলে other নির্বাচন করে মােবাইল নম্বর দিতে হবে। ধাপ-৪: Biller ID (288) ইনপুট দিতে হবে। ধাপ-৫: Bill Number <শিফট><পাসের সন><বাের্ড কোড>রােল নম্বর এন্ট্রি দিতে হবে (স্পেস দেওয়ার প্রয়ােজন নেই)। ধাপ-৬: Amount #150/300 টাকা এন্ট্রি দিতে হবে। ধাপ-৭ : Pin Number চাইলে ঐ রকেট একাউন্টের পিন নম্বর প্রদান করতে হবে। Payment সফল হলে Successful SMS প্রদর্শিত হবে।

শিওরক্যাশের জন্য প্রযােজ্য। *495# ডায়াল করতে হবে। ধাপ-১: মেনুতে Payment নির্বাচন করতে হবে। ধাপ-২: Payment Keyword (DTE) ইনপুট দিতে হবে। ধাপ-৩: (Enter Student ID) <শিফট><পাসের সন><বাের্ড কোড><রােল নম্বর> এন্ট্রি দিতে হবে (স্পেস দেওয়ার প্রয়ােজন নেই)। ধাপ-৪: Amount # 150/300 টাকা এন্ট্রি দিতে হবে। ধাপ-৫: Student Mobile Number দিতে হবে। ধাপ-৬: Pin Number চাইলে ঐ শিওরক্যাশ একাউন্টের পিন নম্বর প্রদান করতে হবে। Payment সফল হলে Successful SMS প্রদর্শিত হবে।

|
বিকাশের জন্য প্রযােজ্য। | বিকাশ অ্যাপ ডাউনলােড করুন। ধাপ-১: আপনার বিকাশ মােবাইল অ্যাপটি খুলুন। ধাপ-২: বিকাশ অ্যাপ মেন্যু থেকে পে বিল সিলেক্ট করুন। ধাপ-৩: বিলার তালিকা থেকে DTE সিলেক্ট করুন। ধাপ-৪: পেমেন্ট কোড দিন। এরপর কন্ট্যাক্ট নাম্বার দিন। পরের ধাপে যেতে “Arrow” বাটনটিতে ট্যাপ করুন। পেমেন্ট কোড পাসের সন><বাের্ড কোড><রােল নম্বর><শিফট (স্পেস দেওয়ার প্রয়ােজন নেই)। ধাপ-৫: বিলের পরিমান 150/300 টাকা এন্ট্রি দিন এবং পরের ধাপে যেতে “Arrow” বাটনটিতে ট্যাপ করুন। ধাপ-৬: পেমেন্ট সারসংক্ষেপ যাচাই করে পরের ধাপে যেতে “Arrow” বাটনটিতে ট্যাপ করুন। ধাপ-৭: পরবর্তী ধাপে যেতে আপনার বিকাশ একাউন্টের পিন নম্বর দিন। ধাপ-৮: পে বিল সম্পন্ন করতে স্ক্রীনের নিচের বাটনটি ট্যাপ করে ধরে রাখুন। পে বিল সম্পন্ন করতে একটু অপেক্ষা করুন। ধাপ-৯: শেষ ধাপে স্ক্রীনে পেমেন্ট কনফার্মেশনের সারসংক্ষেপ দেখে নিন, এবং Transaction ID সংরক্ষন করুন।

আবেদনকারী যে শিক্ষা বাের্ড থেকে এস.এস.সি. পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, ঐ বাের্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর [যেমন: ঢাকা বাের্ডের বেলায় (DHA), সিলেট (SYL), বরিশাল (BAR), চট্টগ্রাম (CHI), কুমিল্লা (COM), দিনাজপুর (DIN), যশাের (JES), রাজশাহী (RAJ), মাদ্রাসা (MAD), কারিগরি (TEC) [উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (BOU), বাের্ড কোড হবে। প্রথম শিফট হলে (A), দ্বিতীয় শিফট হলে (B) এবং উভয় শিফট হলে (C) হবে। [ বি: দ্র: উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের রােল নং এ হাইপেন (-) থাকবে না।]
| [ভর্তির আবেদন ফি জমা দিতে সমস্যা হলে যােগাযােগ করুন- হেল্প লাইনঃ 16216 (রকেট), 09614016495 (শিওরক্যাশ), 16247 (বিকাশ)]। ৬.০ আবেদন ফর্ম পূরণের ধাপ : ৬.১ www.btebadmission.gov.bd হতে Govt. Programs –এর আওতাধীন Diploma in Engineering বাটনে অথবা www.bteb.gov.bd অথবা www.tmed.gov.bd অথবা www.techedu.gov.bd অথবা ওয়েবসাইটের Home page হতে “পলিটেকনিক-টিএসসি (ডিপ্লোমা) ভর্তি” বাটনে ক্লিক করে Application form Open করতে হবে। ৬.২ ১ম ধাপে, আবেদনকারীর রােল, বাের্ড, পাসের সন এবং রেজিঃ নং পূরণ করতে হবে। আবেদনকারীর তথ্য, ধারা নং ৩’ এ উল্লেখিত যােগ্যতা অনুযায়ী সঠিক হলে এবং টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ/বিকাশ এর মাধ্যমে ফি জমা দেয়া হয়ে থাকলে, আবেদনের পরের ধাপে যেতে পারবে। ৬.৩ ২য় ধাপে টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ/বিকাশ এর SMS এর মাধ্যমে পাওয়া Transaction Code পূরণ করতে হবে। Transaction Code সঠিক হলে পরের ধাপে যেতে পারবে। ৬.৪ ৩য় ধাপে আবেদনকারীর তথ্য প্রদর্শিত হবে এবং এখানে আবেদনকারীর ছবি (পরিষ্কার পাসপাের্ট সাইজের রঙিন ছবি JPEG Format-এ, এবং অনধিক 100 KB) আপলােড করতে হবে। এছাড়াও আবেদনকারীর কোন কোটা যুক্ত হলে সেই সংক্রান্ত document আপলােড করতে হবে। ৬.৫ ৪র্থ ধাপে (ফি জমা দানের সময় নির্বাচনকৃত শিট অনুযায়ী) সকল প্রতিষ্ঠান এবং প্রতিষ্ঠানের টেকনােলজি প্রদর্শিত হবে এবং সেখান থেকে প্রতি শিক্ট এ অনধিক ১০টি করে প্রিতিষ্ঠান-টেকনােলজি পছন্দ করতে পারবে। নির্বাচনকৃত প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজি ছাড়াও যে কোন প্রতিষ্ঠানের, যে কোন টেকনােলজি হিসেবে অতিরিক্ত ১টি পছন্দ দেওয়া যাবে (আবেদনকারী তার নির্বাচনকৃত প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজিতে নির্বাচিত না হলে, আসন খালি থাকা সাপেক্ষে যেকোন প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজিতে ভর্তি হওয়ার পছন্দ ইচ্ছা পােষন করতে পারবেন)। [৬.৬ প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজি পছন্দ শেষ হলে পরের ধাপে পছন্দকৃত সকল শিফ্ট-প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজি প্রদর্শিত হবে এবং এখানে আবেদনকারী তার পছন্দক্রম পরিবর্তন করতে পারবে। [৬.৬ অতঃপর আবেদনকারীকে তার সকল তথ্য, ছবি, পছন্দকৃত প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজি এবং পছন্দক্রম প্রদর্শন করা হবে, এবং আবেদন সম্পন্ন করার সর্বশেষ অনুমতি চাওয়া হবে। আবেদন সম্পন্ন হলে আবেদনকারীর contact মােবাইলে SMS এর মাধ্যমে আবেদনের Application ID এবং Pin Number পাঠানাে হবে। এই Application ID এবং Pin Number দিয়ে পরবর্তীতে আবেদনকারী তার আবেদনের তথ্যসমূহ পরিবর্তন করতে পারবে। ৭.০ ভর্তি নির্বাচন প্রক্রিয়া : এসএসসি পাসের রেজাল্ট, পছন্দের ক্রম, কোটা ও অন্যান্য প্রযােজ্য শর্তের ভিত্তিতে প্রার্থীর প্রতিষ্ঠান-টেকনােলজি নির্বাচন করা হবে । ৮.০ অপেক্ষমান তালিকা প্রণয়ন : ৮.১ মােট আসন সংখ্যা অনুযায়ী মেধা, পছন্দের ক্রম ও কোটাভিত্তিক তালিকা প্রণয়নের পাশাপাশি একটি অপেক্ষমান তালিকা প্রণয়ন করা হবে। ৮.২ মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তিকৃত প্রার্থী পছন্দের ক্রমানুসারে প্রতিষ্ঠান/টেকনােলজিভিত্তিক মাইগ্রেশনের সুযােগ পাবে। ৮ি.৩ মেধা তালিকা অনুযায়ী ভর্তির সময়সীমা অতিক্রান্ত হওয়ার পর প্রতিষ্ঠান/টেকনােলজিভিত্তিক শূন্য আসনে অপেক্ষমান তালিকা হতে মেধা, পছন্দক্রম ও কোটার ক্রমানুসারে ভর্তি করা হবে।

৯.০ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কোটা : ৯.১ মহিলা কোটা-২০%; এস.এস.সি. (ভােকেশনাল)-১৫%; ক্ষুদ্র নৃ-গােষ্ঠি কোটা (ঢাকা, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ-সুইডেন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের প্রতিটিতে ৪টি করে এবং অন্যান্য পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, ভিটিটিআই ও সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে ২টি করে); মুক্তিযােদ্ধার সন্তান/সন্তানের সন্তানদের ৫%, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থী কোটা ৫% এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়াধীন কারিগরি শিক্ষা বাের্ড, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর ও অধিদপ্তরাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক/কর্মকর্তা/কর্মচারীর সন্তানদের জন্য ২% কোটা সংরক্ষিত থাকবে। ৯.২ এস.এস.সি.সহ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ড কর্তৃক অনুমােদিত ০২ (দুই) বছর মেয়াদি ট্রেড কোর্স সম্পন্ন প্রার্থীদের প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাক্রম অনুযায়ী ৫% কোটা সংরক্ষিত থাকবে। [৯৩ সরকার নির্ধারিত কোটায় আবেদনের প্রমাণপত্র : (ক) ক্ষুদ্র নৃ-গােষ্ঠী প্রার্থীর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভার চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত সনদপত্র (খ) মুক্তিযােদ্ধার সন্তান/সন্তানের সন্তানদের ক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সনদপত্র এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভার চেয়ারম্যান অথবা কাউন্সিলার কর্তৃক T সম্পর্ক সনদ দাখিল করতে হবে। (গ) শিক্ষা মন্ত্রণালয়াধীন কারিগরি শিক্ষা বাের্ড, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর ও অধিদপ্তরাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক/কর্মকর্তা/কর্মচারীর সন্তানদের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট | মন্ত্রণালয়/অধিদপ্তর/দপ্তর/প্রতিষ্ঠান প্রধানের সনদপত্র। (ঘ) বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে সমাজসেবা অধিদপ্তরের সনদপত্র এবং (ঙ) বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ড কর্তৃক অনুমােদিত ০২ (দুই) বছর মেয়াদী ট্রেড কোর্সধারীদের সনদপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি, উপরােক্ত কাগজ পত্র, আবেদনকারীর Application ID সম্বলিত প্রিন্ট আউটসহ আবেদনপত্র নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে ডাকযােগে/সরাসরি অফিস সময়ে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের পুরাতন ভবনের ৪১২ নং কক্ষে সরাসরি অথবা খামে সরকারী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং -এ ভর্তি কোটার আবেদন” লেখাসহ ডাকযােগে নিম্নস্বাক্ষরকারীর ঠিকানায় ১০/০৬/২০১৯ খ্রি. পৌছানাে নিশ্চিত করতে হবে। ৯.৪ অন-লাইনে আবেদনের পর সরকার নির্ধারিত কোটা (ভােকেশনাল ও মহিলা কোটা ব্যতিরেকে) সুবিধা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ৯.৩ অনুচ্ছেদে বর্ণিত সকল প্রমাণপত্রসমূহ (Application ID সম্বলিত আবেদনের প্রিন্ট কপিসহ) নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে আবেদন ফরম পাওয়া না গেলে প্রযােজ্য কোটা বিবেচ্য হবে না। ৯.৫ সরকার নির্ধারিত কোটায় উপযুক্ত প্রার্থী পাওয়া না গেলে পর্যায়ক্রমে মেধা তালিকা/অপেক্ষমান তালিকা হতে শূন্য আসন পূরণ করা হবে। ১০.০ শূন্য আসন পূরণ : |১০.১ ভর্তিকৃত কোন শিক্ষার্থী ক্লাস শুরুর ০৭ (সাত) কার্যদিবসের মধ্যে ক্লাসে অনুপস্থিত থাকলে ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হবে। উক্ত শূন্য আসন পরবর্তী ০৭(সাত) দিনের মধ্যে অপেক্ষমান তালিকা
হতে মেধাক্রম অনুসারে পূরণ করা হবে। [১০.২ ভর্তির ক্ষেত্রে ২০% ড্রপ-আউট বিবেচনায় টেকনােলজিভিত্তিক প্রতি গ্রুপে আসন সংখ্যা ৫০(পঞ্চাশ) নির্ধারণ করা হয়েছে। [১১.০ ভর্তি সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্যাবলি : [১১.১ অনলাইনে আবেদন ফর্ম পূরণ, ছবি সংযােজন, টেলিটক/রকেট/শিওরক্যাশ/বিকাশের মাধ্যমে আবেদন ফি প্রেরণসহ আনুষাঙ্গিক কার্যক্রম প্রার্থী নিজ দায়িত্বে সম্পন্ন করবে। প্রার্থী এ বিষয়ে কারাে সহযােগিতা নিয়ে প্রতারিত হলে কর্তৃপক্ষ এর জন্য দায়ী থাকবে না। অত্র বাের্ডের আওতায় সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্ব স্ব অধ্যক্ষের তত্ত্বাবধানে ভর্তি সংক্রান্ত হেল্প ডেস্ক চালু থাকবে। [১১.২ ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম অন-লাইনে এবং ভর্তি নীতিমালা-২০১৯ অনুযায়ী সম্পাদিত হবে। [১১.৩ যে কোন তথ্যের জন্য নিম্ন ঠিকানায় যােগাযােগ করা যাবে :

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *